বুখারী ৬৩১৫ (ইফা) || আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ কোন ব্যভিচারী ব্যাভিচার করার সময় মুমিন থাকে না। কোন শরাব পানকারী শরাব পান করার সময় মুমিন থাকে না।

কোন চোর চুরি করার সময় মুমিন থাকে না এবং কোন ছিনতাইকারী এমনভাবে ছিনতাই করে যে, মানুষ তা দেখার জন্য তাদের চোখ সেদিকে উত্তোলিত করে; তখন সে মুমিন থাকে না।

 

বুখারী ৬৩৫৫ (ইফা) || আবদুল্লাহ (রাঃ) থেকে বর্নিত। তিনি বলেনঃ আমি বললাম, হে আল্লাহর রাসুল! কোন পাপটি সবচেযে বড়? তিনি বললেনঃ তুমি আল্লাহর কোন সমকক্ষ সাব্যস্ত করবে।

 

অথচ তিনিই তোমাকে সৃষ্টি করেছেন। আমি বললাম, তারপর কোনটি? তিনি বললেনঃ তোমার সাথে আহার করবে এ ভয়ে তোমার সন্তানকে হত্যা করা। আমি বললাম তারপর কোনটি? তিনি বললেনঃ তোমার প্রতিবেশীর স্ত্রীর সাথে যিনা করা।

 

বুখারী ৬১৫৯ (ইফা) || মাহমূদ ইবনু গায়লান (রহঃ) ইবনু আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেনঃ আবূ হুরায়রা (রাঃ) নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে ছোট গুনাহ সম্পর্কে যা বলেছেনঃ তার চেয়ে যথাযথ উপমা আমি দেখি না।

 

(নবী ﷺ বলেছেনঃ) আল্লাহ তা’আলা আদম সন্তানের উপর যিনার কোন না কোন হিসসা লিখে দিয়েছেন; তা সে অবশ্যই পাবে। সুতরাং চোখের যিনা হল (নিষিদ্ধদের প্রতি) নযর করা এবং জিহবার যিনা হল (যিনা সম্পর্কে) বলা। মন তার আকাঙ্ক্ষা ও কামনা করে, লজ্জাস্হান তাকে বাস্তবায়িত করে অথবা মিথ্যা প্রতিপন্ন করে।

তাবারানী ২০/২১২, সহীহ আল-জামী ৪৯২১ || রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, “তোমাদের কারো মাথায় যদি লোহার সুঁচ দিয়ে আঘাত করা হয়, তবে সেই আঘাত এর যন্ত্রনা তার জন্য উত্তম এমন কোনো মহিলাকে স্পর্শ করা থেকে যাকে স্পর্শ করা তার জন্য জায়েয নেই (অর্থাৎ গায়ের মাহরাম মহিলা)।”

 

সূনান আবু দাউদ (ইফাঃ) ২১৪৯ || আবূ হুরায়রা (রাঃ) নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম হতে বর্ণনা করেছেন যে, আল্লাহ্ তা‘আলা আদম সন্তানের জন্য যিনার একটি অংশ নির্ধারণ করেছেন,আর সে তা অবশ্যই করবে। আর চক্ষুর যিনা হল দৃষ্টিপাত করা, মুখের যিনা হল অশোভন উক্তি, আর নফসের যিনা হল (যিনার) ইচ্ছা ও আকাঙ্খা করা।

 

আর সবশেষে গুপ্তাঙ্গ তা সত্য বা মিথ্যায় পরিণত করে।

 

রাবী আরো উল্লেখ করেছেন যে, দুই হাতের যিনা হল কোন অপরিচিত স্ত্রী কে স্পর্শ করা। আর দুই পায়ের যিনা হল যিনার স্থানে গমণ করা। আর মুখের যিনা হল (কোন অপিরিচিতা স্ত্রীকে) চুম্বন করা। কানের যিনা হলো, (যৌন উদ্দীপক) কথাবার্তা শ্রবণ করা ।  (হাদীসটি ২১৪৯, ২১৫০ এবং ২১৫১ নং হাদিস এর সমন্বিত রূপ)

By Anonto Rajan

রবের প্রতি বিশ্বাস সবসময়...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *