শিরোনাম

মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে নিঃস্বার্থভাবে কুরআন শেখান এই বৃদ্ধ

সম্পূর্ন নিঃস্বার্থভাবে শুধু মাত্র মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের জন্য দ্বারে দ্বারে গিয়ে পবিত্র কুরআনুল কারীম শিখাচ্ছেন তুরস্কের এক বৃদ্ধ।

সম্প্রতি কাঁধে ঝুলানো ব্যাগ সহ তুরস্কের এক বৃদ্ধ লোকের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। ব্যাগের সাথে লাগিয়ে রাখা একটি কাগজে তিনি জনসাধারণকে তার কাছে বিনামূল্যে অল্প সময়ে কুরআন শিখার আহ্বান জানিয়েছেন এবং যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নাম্বারও দিয়ে রেখেছেন।

তার ব্যাগের সাথে লাগিয়ে রাখা কাগজটিতে লেখা রয়েছে –
‘প্রতিদিন ১০ মিনিট ব্যয় করলে আমি আপনাকে কুরআন শিক্ষা দিতে পারি। আপনি আমাকে যেখানে আসতে বলবেন, আমি সেখানে আসতে পারি, হতে পারে সেটা আপনার বাড়ি কিংবা অফিস। কুরআন শেখানোর জন্য আমি কোনো পারিশ্রমিক গ্রহণ করি না। আমি এটা শুধুমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য করে থাকি।’

যদিও লোকটির নাম ও ঠিকানা জানা যায়নি, কিন্তু তার এ উদ্যোগটি নিঃসন্দেহে একটি মহৎ উদ্যোগ এবং প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পবিত্র হাদীস (তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম সে ব্যক্তি যে কুরআন মাজীদ শিক্ষা করে এবং শিক্ষা দেয়) অনুযায়ী তিনি পৃথিবীর সর্বোত্তম ও শ্রেষ্ঠ মানুষদের অন্তর্ভুক্ত।

বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর জন্য তিনি এক অনুস্মরনীয় আদর্শ। যারা পবিত্র কুরআনুল কারীম জানেন, তাদের জন্য তুরস্কের এ বৃদ্ধ ব্যক্তিটি হতে পারেন অনুপ্রেরণা যাতে প্রতিটি কুরআন জানা লোক সমাজের কুরআনের শিক্ষা থেকে বঞ্চিত লোককে কুরআনুল কারিম শেখাতে পারে।

কুরআনের শিক্ষায় শিক্ষিত প্রতিটি মুসলমান যদি এই বৃদ্ধের মত নিঃস্বার্থভাবে এবং স্ব উদ্যোগে কুরআনের আলো বিতরণ করা শুরু করে তাহলে সমাজ থেকে সকল অন্ধকার খুব দ্রুতই দূর হবে। কুশিক্ষা ও কুসংস্কৃতির ভয়ানক অন্ধকারে ডুবন্ত এ সমাজ হবে কুরআনের আলোয় আলোকিত।

Alert! This website content is protected!