স্বামী যৌনতৃপ্তি প্রদানে অক্ষম হলে স্ত্রীর করনীয় সম্পর্কে ইসলাম কী বলে?

স্বামী ঃএত্তো অভিমান কার থেকে শিখলে??

স্ত্রী : হুমায়রার থেকে!

স্বামী: হুমায়রা??

উনি আবার কে?

স্ত্রী : উনি রাসূল (সা:) এর কুমারি স্ত্রী আয়শা (রা)!

স্বামী : উহ! তাই বলো! আমি ভাবতেছি কোথাকার কোন হুমায়রা! তার মানে বিয়ের আগেই সব প্লান করে রাখছ?

স্ত্রী : কিসের প্লান?

স্বামী : এই কিভাবে অভিমান করবে,,কিভাবে রাগ করবে,,,,কিভাবে ভালোবাসবে!

স্ত্রী : আমি কি তা বলছি?

কিন্তু জানেন রাসূল (সা:) সম্পর্কে যতই জেনেছি ততই মুগ্ধ হয়েছি! খাজিদা (রা:) উনার থেকে ১৫ বছরের বড় তাও দুজনের মাঝে ভালোবাসার অভাব ছিল না। বরং একদিন আয়শা (রা:) খাদিজা (রা:) কে বুড়ি ডাকার কারণে উনার থুতনি চেপে ধরেছিলেন।
এদিন ছাড়া আর কোন দিন রাসূল (সা:) কোন স্ত্রীর গায়ে হাত তুলেনি!
কতটা ভালোবেসে এমন ব্যবহার করলেন আয়শা (রা:) এর সাথে!
ভাবা যায়???

আবার অন্য দিকে আয়শা (রা:) এর কথা ভাবুন!
রাসূল (সা:) এর যখন ৫০ বছর আয়শা (রা:) তখন মাত্র ৯ বছর!
বয়সের কত ব্যাবধান তাও বিভিন্ন কারণে আয়শা (রা:) গাল ফুলিয়ে বসে থাকতেন!
অভিমান তো তার সাথেই করা যায় যাকে খুব বেশিই ভালোবাসা যায়! ৫০ বছর বয়সেও তিনি ৯ বছরের একটা পিচ্চির মান ভাঙ্গাতেন পরম ভালোবাসায়!
যখনি আয়শা (রা:) অভিমান করে থাকতেন তখন রাসূল ( সা:) অনেক সময় তাকে হুমায়রা পাখি বলে ডাকতেন! আর আয়শা (রা:) তখন হেসে ফেলতেন!

স্বামী : সত্তিই স্ত্রীদের কিভাবে ভালোবাসতে হয় রাসূল (সা:) থেকেই শিখা উচিৎ!

আচ্ছা তুমি আমার হুমায়রা হবে?

স্ত্রী : হবো! তবে শর্ত আছে!

স্বামী : কি শর্ত বলো!

স্ত্রী : আমাকে অনেক ভালোবাসতে হবে!

স্বামী : আর না বাসলে তুমিও বুঝি গাল ফুলিয়ে বসে থাকবে? হা হা হা!

স্ত্রী : হিহিহি!

হুম থাকবই তো!

আমি জানি আপনি আমায় খুব ভালোবাসেন!

আর আপনি স্বামী হিসেবেও খুব ভালো?

স্বামী : যাক সার্টিফিকেট তাহলে পেয়ে গেলাম!

স্ত্রী : কিসের সার্টিফিকেট?

স্বামী : রাসূল (সা:) তো বলেছেন ;

সেই ভালো যে তার স্ত্রীর কাছে ভালো!

তো আমি তো তোমার কাছে ভালো নাকি?

স্ত্রী : জ্বী! কিন্তু আমার কি হবে?

স্বামী : তোমার আবার কি হবে?

স্ত্রী : রাসূল (সা:) তো বলেছেন ;

স্বামীর সন্তুষ্টিতে স্ত্রীর জান্নাত!

আপনি আমার প্রতি সন্তুষ্ট তো?

স্বামী : পাগলি একটা!

হুম এখন যেরকম আছ সেরকমি থেক!

রাগ,অভিমান আর ভালোবাসা দিয়ে সারাটা জীবন ডুবিয়ে রেখ! আর আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে যেও না কেমন?
❤স্বামী স্ত্রীর মহব্বত যেনো আল্লাহর জন্যই হয়

#গল্পটি কেমন লাগল অবশ্যই #কমেন্ট করে জানাবেন!

আপনার মূল্যবান মন্তব্য আমাদের নতুন গল্প তৈরির #অনুপ্রেরণা। ——– ✍️

By Anonto Rajan

রবের প্রতি বিশ্বাস সবসময়...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *